রাজনীতি

বুধবার, ১২ মে, ২০২১ (১১:১৩)

খালেদা জিয়া দেশের বাইরে গেলে ফিরবেন না, এটা ভুল ধারণা: মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়া দেশের বাইরে গেলে ফিরবেন না, এটা ভুল ধারণা: মির্জা ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখা এবং বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করাই সরকারের লক্ষ্য। কেন আপনারা খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার অনুমতি নিয়ে খোঁড়া যুক্তি দিচ্ছেন। নানা ভনিতা করছেন কেন? বেগম জিয়া দেশের বাইরে গিয়ে রাজনীতি করবেন, দেশে ফিরবেন না-এটা একটি ভ্রান্ত ধারণা। তার অবস্থা এখনও সংকটপূর্ন। তার কিডনি ও হার্টের সমস্যা নিয়ে ডাক্তাররা উদ্বিগ্ন। তাকে দেশের বাইরে চিকিৎসার সুযোগ না দিয়ে সরকার খারাপ দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন তিনি এসব কথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, শেখ মুজিবুর রহমানও এমন ছিলেন না। তিনিও তার প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে চিকিৎসার সুবিধা দিয়েছেন, ছেড়ে দিয়েছেন। এমনকি তাদেরকে ব্যক্তিগতভাবেও সাহায্য করেছেন। কিন্তু আপনাদের (বর্তমান সরকারের) যোগ্যতা নেই। থাকলে অনেক আগেই খালেদা জিয়াকে ছেড়ে দিতেন।

খালেদা জিয়াকে বিদেশে যেতে অনুমতি না দেওয়ার প্রসঙ্গ টেনে মির্জা ফখরুল বলেন, উনারা বলেছেন, অনুমতি দিতে পারছেন না। কেনো পারছেন না যে যুক্তিগুলো দিলেন, সেই যুক্তিগুলো একেবারেই অগ্রহযোগ্য যুক্তি, খোঁড়া যুক্তি। তারা বলেছেন যে, সাজাপ্রাপ্তদের বিদেশে পাঠানোর নজির নেই। এটা তারা ভুল ব্যাখ্যা দিয়েছেন, জনগনকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছেন।

কিন্তু ১৯৭৯ সালে আমাদের প্রথম স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলনকারী আ স ম আব্দুর রব জেলে ছিলেন। তখন জিয়াউর রহমান প্রেসিডেন্ট ছিলেন। পরে তাকে মুক্তি দিয়ে চিকিৎসার জন্য জার্মানিতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল। চিকিৎসার পর তিনি সুস্থ হয়ে দেশে এসেছিলেন। ২০০৮ সালে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমকেও তত্ত্বাবধায়ক সরকার সাজা মাফ করে দিয়ে বিদেশে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। এমন আরও অনেক আছে, আমি নাম বলবো না। কেনো খালেদা জিয়ার বিষয়ে খোঁড়া যুক্তি দিচ্ছেন। সোজা বলে দেন যে আমরা তাকে বিদেশে যেতে অনুমতি দেবো না।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিচার ব্যবস্থায় দ্বৈত নীতির কারণেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া জামিন পাননি। রোগীর ব্যক্তিগত গোপনীয়তা রক্ষার জন্যই বেগম জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে শুরু থেকেই সংযতভাবে কথা বলা হয়েছে।যেসব কথা বলা হচ্ছে এখন এগুলো শুধু অশ্লীল নয়, অমার্জিত এবং অগ্রহনযোগ্য। আমি আবারো বলছি, দয়া করে সংযত হোন, দয়া করে আপনাদের কথা-এটা একটু কমান। যাচ্ছে তাই বলবেন আর আপনারা মনে করবেন সবসময় পার পেয়ে যাবেন এসব কথা। এভরি থিং ইজ বিং নোটেড অ্যান্ড দি পিপলস অব দিস কান্ট্রি উড বি গিভ এনারসার টু টাইমলি। সময় যখন আসবে তারা তার জবাব দিয়ে দেবে। / ইত্তেফাক / ছবিঃ ইন্টারনেট

এছাড়াও রয়েছে

প্রধানমন্ত্রী সহনশীলতা ও ধৈর্যের পরিচয় দিচ্ছেন: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে পরিকল্পিত মিথ্যাচার করছে : ওবায়দুল কাদের

মেগা প্রকল্প টাকা বানানোর প্রজেক্ট: মির্জা ফখরুল

বিতর্কিত কাউকে দলে ঠাঁই দেওয়া যাবে না: কাদের

বিএনপির রাজনীতি ভাইরাসের চেয়েও ভয়ঙ্কর: কাদের

আবারও খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার দাবি ফখরুলের

বিএনপি ধ্বংসাত্মক অপশক্তির পৃষ্ঠপোষক: কাদের

‘অন্য ইস্যু থেকে জনগণের দৃষ্টি সরাতেই পরীমণির ঘটনা সামনে আনা’

আরও খবর

  • খুলনায় করোনায় মৃত্যু ১১, শনাক্ত ১৭৭

    খুলনায় করোনায় মৃত্যু ১১, শনাক্ত ১৭৭

  • রাজশাহী মেডিকেলে করোনায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু

    রাজশাহী মেডিকেলে করোনায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু

  • ভারতে গরু চুরির অভিযোগে তিনজনকে পিটিয়ে হত্যা

    ভারতে গরু চুরির অভিযোগে তিনজনকে পিটিয়ে হত্যা

  • লক্ষ্মীপুর-২-এ জিতলেন নৌকার নুরউদ্দিন চৌধুরী

    লক্ষ্মীপুর-২-এ জিতলেন নৌকার নুরউদ্দিন চৌধুরী

সর্বশেষ খবর

৪২তম বিসিএসের ভাইভা আবারও স্থগিত

অ্যান্ড্রয়েডকে টেক্কা দিতে আইফোনে যেসব সুবিধা আসছে

বাংলাদেশসহ ৩০ দেশে সাড়ে পাঁচ কোটি টিকা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

জিম্বাবুয়ে সফরের আগে মুশফিকের আঙুলে চিড়