অর্থনীতি

বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০১৯ (১০:৪৬)

পণ্য মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ব্যবসায়ীদের আহবান বাণিজ্যমন্ত্রীর

পণ্য মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ব্যবসায়ীদের আহবান বাণিজ্যমন্ত্রীর

আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের সরবরাহ ও মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন,‘ঈদের সময় যেন সাধারণ মানুষ কষ্ট না পায়। তারা যেন সহনীয় মূল্য নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয় করতে পারে। এ ব্যাপারে আপনারা (ব্যবসায়ীরা) সহযোগিতা করবেন। কোথাও প্রয়োজন হলে সরকার ভর্তূকি দেবে।’

বুধবার সচিবালয়ে বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ঈদুল আজহা উপলক্ষে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি সংক্রান্ত পর্যালোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বাণিজ্য সচিব মো. মফিজুল ইসলামের সঞ্চালনায় সভায় বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) সহসভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমানসহ অন্যান্য ব্যবসায়ী প্রতিনিধিবৃন্দ ও সরকারি সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে সরকারি বিপনন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) এর বাজার মনিটারিং ও বিপনন ব্যবস্থা জোরদারের নির্দেশ দেন। তিনি বলেন,পেঁয়াজ ও রসুনসহ যেসব পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে টিসিব সেসব পণ্য ট্রাকসেলে বিক্রি করবে। যাতে ঈদকে সামনে রেখে পণ্যের কোনরকম মূল্য বৃদ্ধি যেন না পায়।

বাণিজ্য সচিব বলেন, বণ্যা পরিস্থিতির কারণে কয়েকটি পণ্যের উৎপাদন ও সরবরাহ ব্যবস্থায় কিছুৃটা সমস্যা তৈরি হয়েছে। এছাড়া ভারতে পেঁয়াজের ওপর যে ১০ শতাংশ ভর্তুকি দেয়া হত,সেটা তুলে দেয়া হয়েছে। এ কারণে দেশে পেঁয়াজের মূল্য কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া রসুন ও আদার মূল্য কিছুটা উর্ধ্বমূখী। এর বাইরে অন্য সকল নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য মূল্য স্থিতিশীল রয়েছে বলে তিনি জানান।

তিনি ঈদের সময় পেঁয়াজের সরবরাহ ও মূল্য স্থিতিশীল রাখতে সোনা মসজিদ ও ভোমরা স্থলবন্ধর ২৪ ঘন্টা খোলা রাখার নির্দেশ দেন। যাতে বাড়তি পেঁয়াজ আমদানির ক্ষেত্রে যাতে কোন বিঘœ সৃষ্টি না হয়।

বাণিজ্য সচিব বলেন, ঈদের মত ধর্মীয় উৎসবকে সামনে রেখে পণ্য মূল্য স্থিতিশীল রাখতে সরবরাহ কাঠামোর সাথে জড়িত সবারই দায়বদ্ধতা রয়েছে। তাই আশা করি ঈদের সময় নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ব্যবসায়ীরা চেস্টা করবেন।

সভায় জানানো হয়,চাল, চিনি, ডাল, হলুদসহ অন্যান্য পণ্য পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে। এছাড়া ভোজ্যতেল,এলাচ, জিরাসহ অন্যান্য মসলার সরবরাহ স্বাভাবিক রয়েছে,তাই এসব পণ্যের মূল্যও বাড়ার কোন সম্ভাবনা নেই।

কোরবানির সময় পশু পরিবহনে যাতে বিশৃঙ্খল পরিবেশের সৃষ্টি না হয় সেজন্য, ট্রাক বা ট্রলারের সামনে সাইনবোর্ডে গন্তব্য বা হাটের নাম লিখে রাখার পরামর্শ দেয়া হয়। এতে কোরবানির পশু ব্যবসায়ীদের হয়রানি কমবে। এক হাটের গরু অন্য হাটে নেওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হবে না।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মেনেই ব্যাংকিং করতে হবে: অর্থমন্ত্রী

একনেকে ৫ প্রকল্পের অনুমোদন, ব্যয় হবে ৪৬৩৬ কোটি

ডলারের দাম বাড়ল

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সঙ্গে দারিদ্র্য কমার হার সাযুজ্যপূর্ণ নয়

পদ্মা সেতু চালু হলে প্রবৃদ্ধি ১ শতাংশ বাড়বে : অর্থমন্ত্রী

বাণিজ্যিক যাত্রায় ডিজিটাল লাইফস্টাইল অ্যাপ ডিমানি

শিগগিরই পুঁজিবাজারে আসছে সরকারি লাভজনক প্রতিষ্ঠান

খোলাবাজারে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু

সর্বশেষ খবর

সরকারের শিথিলতায় দুর্ঘটনা চরম মাত্রা লাভ করেছে: ফখরুল

নিহত প্রত্যেকের পরিবার মন্ত্রণালয় থেকে পাবে এক লাখ টাকা: রেলমন্ত্রী

লতা মঙ্গেশকরের শারীরিক অবস্থার উন্নতি

পীরগঞ্জ উপজেলা আ'লীগের কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য হলেন জয়