মামলা করার সিদ্ধান্ত নিলেন খালেদ মোশারফের মেয়ে

রবিবার, ০৫ নভেম্বর, ২০১৭ (১৫:১৯)
মামলা-করার-সিদ্ধান্ত-নিলেন-খালেদ-মোশারফের-মেয়ে

খালেদ মোশাররফ- মেয়ে মাহজাবিন খালেদ

ঐতিহাসিক ৭ নভেম্বরের সঙ্গে মেজর জেনারেল জিয়াউর রহমান আর কর্নেল তাহেরের পাশাপাশি উঠে আসে যার নাম তিনি মেজর জেনারেল খালেদ মোশাররফ। মুক্তিযুদ্ধে 'কে' ফোর্সের অধিনায়ক। ৭ নভেম্বর পাল্টা অভ্যুত্থানে নিহত এই সেনা কর্মকতার হত্যার বিচার হয়নি ৪২ বছরেও। তবে এবার আদালতের শরণাপন্ন হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার পরিবার।

চার দশকে বিচার প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ার জন্য তারা রাজনৈতিক জটিলতাকেই দায়ী করেছেন। আগামী ৭ নভেম্বরই পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া হবে। মুক্তিযোদ্ধা এই সেনা কর্মকর্তার হত্যার সুবিচার পেতে সরকারের সহযোগিতাও চেয়েছেন তারা।

আর বিশ্লেষকরা বলছেন, ক্ষমতাসীন সরকারের সদিচ্ছাই পারে খালেদ মোশাররফ হত্যার বিচার নিশ্চিত করতে।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভোরে সেনাবাহিনীর কিছু উচ্চাভিলাষী কর্মকর্তা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে। সামরিক আইনে খন্দকার মোশতাককে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করে জিয়াউর রহমানকে সেনাবাহিনীর প্রধান নিয়োগ দেয়া হয়।

পরবর্তী তিন মাসের নানা ঘটনা প্রবাহে ৩ নভেম্বর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে আটক চার জাতীয় নেতাকে হত্যার মধ্য দিয়ে জাতিকে নেতৃত্বশূন্য করা হয়।

পরদিন ৪ নভেম্বর বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের সমর্থনে প্রতিষ্ঠিত মোশতাক সরকারকে সামরিক অভ্যূত্থানে উৎখাত করেন মেজর জেনারেল খালেদ মোশাররফ। কিন্তু ৭ নভেম্বর পাল্টা অভ্যুত্থানে হত্যা করা হয় খালেদ মোশাররফকে। তার সঙ্গেই হত্যা করা হয় আরো দুই মুক্তিযোদ্ধা সেনা কর্মকর্তা কে এন হুদা ও এটি এম হায়দারকে।

এই হত্যার পেছনের কুশীলবদের জাতি ভাল করেই চেনেন বলে জানান খালেদ মোশারফের মেয়ে মাহজাবিন খালেদ।

ঘটনার ৪২ বছরেও এই হত্যার বিচার প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ার কারণও বলেন খালেদ মোশাররফের কন্যা।

রাজনৈতিক নানা জটিলতাকে পিছনে রেখে পরিবারের পক্ষ থেকে এবার মামলার উদ্যোগ নেয়ার কথাও জানান তিনি।

আর বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারকারী ক্ষমতাসীন সরকারের পক্ষেই খালেদ মোশাররফ হত্যারও বিচার করা সম্ভব বলে মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

ঠাকুরপাড়ায় হিন্দু বাড়িগুলোতে হামলায় নেতৃত্ব দেয় জামাত-বিএনপি-জাপা

চলছে রাজনৈতিক দরকষাকষি, নির্বাচন করতে পারবে না জামাত

ভয়াল ১২ নভেম্বর: প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় কেড়ে নিয়েছিল ৫ লাখ মানুষের জীবন

শেষ ধাপে রয়েছে একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলা-মামলার বিচার প্রক্রিয়া

উচ্চ পর্যায়ে ক্ষমতার অভিলাসেরই পরিণতি ৭ নভেম্বর

অভ্যুত্থান সফল না হওয়ার জন্য মোশাররফের অদূরদর্শিতাই দায়ী