বিশেষ প্রতিবেদন

সার্চ কমিটি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া বিশ্লেষকদের

শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০১৭ (১৪:২০)
সার্চ-কমিটি-নিয়ে-মিশ্র-প্রতিক্রিয়া-বিশ্লেষকদের

সার্চ কমিটি

নতুন নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ যে সার্চ কমিটি গঠন করেছেন— তা নিয়ে বিশ্লেষকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

এ সার্চ কমিটি কোন ভালো ফল বয়ে আনবে বলে মনে করেন না বিশ্লেষকদের কেউ কেউ। কারণ বর্তমান নির্বাচন কমিশন গঠিত হয়েছিল যে সার্চ কমিটির মাধ্যমে সেই কমিটির প্রধান এবারের সার্চ কমিটিরও মূলব্যক্তি হওয়ায় এবারও স্বচ্ছ ও স্বাধীন কমিশন গঠন নিয়ে সংশয়ে তারা।

তবে বর্তমান সার্চ কমিটিতে দুই জন শিক্ষাবিদকে সম্পৃক্ত করার বিষয়টিকে অনেকেই ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন। তাই কমিটি যেমনই হোক, এ কমিটির মাধ্যমেই যোগ্য, শক্তিশালী আর নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করা যাবে বলে তারা আশাবাদী।

নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতির গঠিত সার্চ কমিটি নিয়ে নানা মহলে চলছে বিশ্লেষণ। কেউ স্বাগত জানাচ্ছেন আবার কেউ কেউ এ কমিটির সাফল্য নিয়ে সন্দিহান।

জেষ্ঠ্য সাংবাদিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক আমানুল্লাহ কবীরের মন্তব্য, যে সার্চ কমিটির প্রধানের নেতৃত্বে বর্তমান নির্বাচন কমিশন গঠন করা করেছিল এবং যা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে বির্তকের সৃষ্টি হয়েছে। সেই সার্চ কমিটির প্রধানের নেতৃত্বে এবারও স্বাধীন নিরপেক্ষ কমিশন গঠন সম্ভব না।

তবে এবারের কমিটিতে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি অন্তর্ভূক্ত হওয়াকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন তিনি।

আমান উল্লাহ'র বক্তব্যের সঙ্গে দ্বিমত করেছেন আরেক বিশ্লেষক নির্বাচন পর্যবেক্ষণ পরিষদের (জানিপপ) প্রধান নির্বাহী ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ বলেন, গত সার্চ কমিটির থেকে এবারের কমিটিতে নতুনত্ব যোগ করেছে একজন নারী প্রতিনিধি এবং একজন নাগরিক সমাজে প্রতিনিধি সম্পৃক্ত হওয়ায়।

এ কমিটির মাধ্যমেই শক্তিশালী ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন সম্ভব বলে মনে করছেন তিনি।

আর বেসরকারি সংস্থা ফেয়ার ইলেকশন মনিটরিং এ্যালান্স (ফেমার) প্রেসিডেন্ট মুনিরা খান মনে করেন, কম সময়ের মধ্যে নতুন ইসি গঠনে যোগ্য ব্যক্তি খুঁজে বের করা সার্চ কমিটির জন্য অনেক বড় চ্যালেঞ্জ।

সব বির্তকের ঊর্ধ্বে থেকে এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার তাগিদ দিয়েছেন তিনি।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

ঠাকুরপাড়ায় হিন্দু বাড়িগুলোতে হামলায় নেতৃত্ব দেয় জামাত-বিএনপি-জাপা

চলছে রাজনৈতিক দরকষাকষি, নির্বাচন করতে পারবে না জামাত

ভয়াল ১২ নভেম্বর: প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় কেড়ে নিয়েছিল ৫ লাখ মানুষের জীবন

শেষ ধাপে রয়েছে একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলা-মামলার বিচার প্রক্রিয়া

উচ্চ পর্যায়ে ক্ষমতার অভিলাসেরই পরিণতি ৭ নভেম্বর

অভ্যুত্থান সফল না হওয়ার জন্য মোশাররফের অদূরদর্শিতাই দায়ী