শিক্ষা বইয়ে অপ্রাসঙ্গিকভাবেই আনা হয়েছে ধর্মীয় বিষয়

শুক্রবার, ২০ জানুয়ারী, ২০১৭ (১৪:৪৮)
শিক্ষা-বইয়ে-অপ্রাসঙ্গিকভাবেই-আনা-হয়েছে-ধর্মীয়-বিষয়

পাঠ্যবই

নতুন পাঠ্যপুস্তকে অসংখ্য ভুলের সঙ্গে রয়েছে নানা অসঙ্গতি এবং অপ্রাসঙ্গিক বিষয়ও— নিখাঁদ সাহিত্য ও ভাষা শিক্ষার বইয়ে অপ্রাসঙ্গিকভাবেই তুলে আনা হয়েছে ধর্মীয় বিষয়।

হিন্দুত্ববাদের দোহাই দিয়ে বাদ দেয়া হয়েছে প্রগতিশীল লেখকদের গল্প, কবিতা। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক দুই স্তরেই যুক্ত করা হয়েছে ধর্মীয় ভাবধারার একাধিক গল্প, কবিতা।

শিক্ষাবিদদের মতে, পাঠ্যবইয়ে এমন পরিবর্তন উদ্দেশ্য প্রণোদিত, সুপরিকল্পিতভাবে শিক্ষা ব্যবস্থায় মৌলবাদ ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে। বিষয়টিকে বাঙালি জাতিকে সাম্প্রদায়িকীকরণের সংকেত হিসেবে দেখছেন তারা।

এবারের পাঠ্যবইয়ে ভুলভ্রান্তির পাশাপাশি বিতর্ক সৃষ্টি করেছে নতুন লেখা যোগ করা এবং পুরনো লেখা বাদ দেয়ার বিষয়। আর নয়টি শ্রেনিরই পাঠ্যবইয়ে কোনও না কোনো ভুল, বিকৃত তথ্য, কবিতার শব্দ ফেলে দিয়ে নতুন শব্দ বসানোর নজির তো আছেই।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, প্রাথমকি ও মাধ্যমিক দুই স্তরের বাংলা বই থেকে ২০১২ সালে যে বিষয়গুলো বাদ দেয়া হয়েছিল, তার সবই ফিরে এসেছে ২০১৭ সালের সংস্করণে। আবার ২০১২ সালের বইয়ে নতুন যে বিষয় অন্তর্ভূক্ত হয়েছিল সেগুলো বাদ দেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক স্তরের পরিমার্জিত নতুন বাংলা বইয়ে যুক্ত হয়েছে, দ্বিতীয় শ্রেনির বাংলা বইয়ে অর্ন্তভুক্ত হয়েছে ‘সবাই মিলে করি কাজ’, তৃতীয় শ্রেনিতে ‘খলিফা হযরত আবু বকর (রা.)’, চতুর্থ শ্রেনিতে ‘খলিফা হযরত ওমর (রা.)’, পঞ্চম শ্রেনিতে ‘বিদায় হজ’ ও ‘শহীদ তিতুমীর’ ‘শিক্ষাগুরুর মর্যাদা’।

আর বাদ পড়েছে, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ হুমায়ুন আজাদের লেখা ‘বই’, কবি মোস্তফা রচিত ‘প্রার্থনা’।

এরমধ্যে ‘সবাই মিলে করি কাজ’ হযরত মুহাম্মদ (সা.) জীবনচরিত ‘খলিফা হযরত আবু বকর (রা.)’ এবং ‘খলিফা হযরত ওমর (রা.)’ শীর্ষক বিষয়গুলো বাংলা বইয়ে না থাকলেও ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষায় অর্ন্তভুক্ত ছিল।

শিক্ষাবিদদের মতে, পাঠ্যবইয়ে এ পরিবর্তন ‘জাতীয় শিক্ষানীতি’ এবং সংবিধান পরিপন্থি।

হলি আর্টিজান, শোলাকিয়াসহ জঙ্গি কর্মকাণ্ডে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ততা উল্লেখ অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী করে বলেন, এ পাঠ্যপুস্তকের মধ্য দিয়ে শিশুরা মৌলবাদ শিখে বেড়ে উঠবে, যা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার গড়া বাংলাদেশের জন্য বড় ধরনের হুমকি।

মূল ধারার শিক্ষা ব্যবস্থাকে মাদ্রাসা শিক্ষার দিকে ঠেলে দিয়ে, একটি গোষ্ঠীর দাবি মেটাতে সরকার আগামী প্রজন্মকে মৌলবাদি চিন্তা ধারায় গড়ে ওঠার যে প্রক্রিয়া শুরু করেছে, তা থেকে বের হয়ে আসার তাগিদ আরেক শিক্ষাবিদের।

২০১৩ সালে সংস্করণ করা পাঠ্যপুস্তকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে বেশ কিছু সুপারিশ তুলে ধরেছিল হেফাজতে ইসলাম। বিশেষজ্ঞদের মতে, সেই দাবিরই প্রতিফলন ঘটেছে এবারের পাঠ্যপুস্তকে।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

ঠাকুরপাড়ায় হিন্দু বাড়িগুলোতে হামলায় নেতৃত্ব দেয় জামাত-বিএনপি-জাপা

চলছে রাজনৈতিক দরকষাকষি, নির্বাচন করতে পারবে না জামাত

ভয়াল ১২ নভেম্বর: প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় কেড়ে নিয়েছিল ৫ লাখ মানুষের জীবন

শেষ ধাপে রয়েছে একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলা-মামলার বিচার প্রক্রিয়া

উচ্চ পর্যায়ে ক্ষমতার অভিলাসেরই পরিণতি ৭ নভেম্বর

অভ্যুত্থান সফল না হওয়ার জন্য মোশাররফের অদূরদর্শিতাই দায়ী