বিশেষ প্রতিবেদন

শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৬ (১৪:৫০)

বর্ষশেষের খেরোখাতায় মিলিয়ে বিদায়ী বছরে পাওয়া- না পাওয়ার হিসেব

ছবি নাই

নানা ঘটনা-দুর্ঘটনা, প্রত্যাশা আর প্রাপ্তির গরমিলের মধ্যদিয়ে শেষ হতে যাচ্ছে আরো একটি বছর। বর্ষশেষের খেরোখাতায় তাই মিলিয়ে নিতে হয় বিদায়ী বছরে পাওয়া- না পাওয়ার হিসেব।

দুঃস্বপ্নেরও অতীত জঙ্গি হামলা আর সাইবার ক্রাইমে রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনা যেমন বিশ্ববাসীকে অবাক করে দিয়েছে তেমনি উজ্জ্বল করেছে পরিবেশ এবং তথ্য প্রযুক্তিতে পাওয়া বিশ্ব সম্মাননা।

যুদ্ধাপরাধীদের রায় কার্যকর জাতির জন্য বড় স্বস্তি বয়ে আনলেও সাম্প্রদায়িকতার বিস্তার সরকারকে নানাভাবে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

এতো কিছুর পরও জঙ্গি দমন করে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ের ধারা অব্যাহত রাখায় সরকারকে কৃতিত্বের ভাগই বেশি দিচ্ছেন বিশিষ্টজনরা।

বছরের শুরুতেই রাজধানীর গুলশানে জাপানি নাগরিক সিজার তাবেলা আর রংপুরে ইতালিয় নাগরিক কুনিও হোসির দুর্বত্তদের হাতে নিহতের ঘটনা বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি নিয়ে যে সঙ্কট তৈরি করেছিল। গত ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারি অ্যান্ড রেস্তোরাঁয় ভয়াবহ জঙ্গি হামলার ঘটনাটি তা আরো জটিল করে তোলে।

জঙ্গি হামলায় বিদেশিসহ ২২জনের নির্মম হত্যাযজ্ঞের সাক্ষী হয়েছে বাংলাদেশ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে হামলাকারী ৫ জঙ্গি নিহত হলেও এর রেশ বহুদিন ছাপ রেখে যায় বিশ্ববাসীর মনে।

আর বছর শেষ হওয়ার মুখে ২৪ ডিসেম্বর মানববোমা বিস্ফোরণে কেঁপে উঠলো রাজধানীর আশকোনা। সুইসাইড জ্যাকেটের বোতাম টিপে নারীর আত্মঘাতি হামলার ঘটনা বাংলাদেশে এটিই প্রথম।

একের পর এক জঙ্গি হামলার ঘটনা দেশের মানুষকে যেমন উদ্বেগের মধ্যে ফেলে দিয়েছিল, তেমনি সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ দমনে সরকারের পদক্ষেপে ধীরে ধীরে স্বস্তিও ফিরে আসতে শুরু করেছিল। তবে বছরের শেষ দিকে নাসিরনগর ও গোবিন্দগঞ্জে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার ঘটনা দেশের অসামম্প্রদায়িক ভাবমূর্তিকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে বলে মনে অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।

এসবের বাইরে সুন্দরবনের কাছে রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ কেন্দ্র করেও উত্তপ্ত ছিল রাজপথ।

দেশের অর্থনৈতিক খাতে বড় ধরনের চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে বাংলাদেশের রিজার্ভ থেকে অর্থ চুরির ঘটনাটি। সাইবার হ্যাকিং নতুন কিছু না হলেও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রির্জাভ থেকে চুরি গোটা বিশ্বেই হৈ চৈ ফেলে দেয়। ব্যাংকিং খাতে নিরাপত্তার বিষয়টি নতুন করে উঠে আসে আলোচনায়।

তবে বছর জুড়ে রাজনৈতিক পরিস্থিতি ছিল নিরুত্তাপ। বিএনপি মাঠে না থাকলেও ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা আর জেলা পরিষদ নির্বাচন মোটামুটি নির্বিঘ্নেই পাড় করে আওয়ামী লীগ সরকার। আর দেশে সুষ্ঠু নির্বাচনের নতুন রেকর্ড গড়ল সদ্য অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন।

বছরব্যাপী এতো ঘটনার মধ্যেও সরকারের অন্যতম সাফল্য অর্থনৈতিক অগ্রগতি ধরে রাখা। বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেলের খ্যাতির পাশাপাশি জঙ্গি দমনেও এখন বাংলাদেশ উজ্জল দৃষ্টান্ত। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ পুরস্কার ও আইসিটি টেকসই উন্নয়ন পুরস্কার বিশ্বে বাংলাদেশকে নতুন উচ্চতা দিয়েছে।

সরকারের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ পদ্মাসেতু। এর নির্মাণ কাজের প্রায় ৪০শতাংশ এরইমধ্যে সম্পন্ন।

দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, পায়রা গভীর সমুদ্র বন্দরের কাজের উদ্বোধনের পাশাপাশি মহাসড়ক চারলেন ও আট লেনে করার উদ্যোগের মধ্য দিয়ে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার অঙ্গীকার বাস্তবায়ন আরেক ধাপ এগিয়েছে এ বছর।

অন্যদিকে যেই স্বাধীনতাবিরোধীদের আস্ফালন দীর্ঘদিন সইতে হয়েছে দেশবাসীকে, সেই নিজামী-মুজাহিদ, সাকা চৌধুরীর ফাঁসি কার্যকর জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছে।

এছাড়াও, চীনের প্রেসিডেন্ট শি চিন পিং, জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে আর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির সফর কূটনৈতিক দিক দিয়েও সাফল্য যোগ করেছে।

 

এছাড়াও রয়েছে

ঈদে ফিটনেস বিহীন গাড়ি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি

সহসাই মুক্তি পাচ্ছেন না খালেদা জিয়া

শান্তি চুক্তি বাস্তবায়িত না হওয়াই পার্বত্য অঞ্চলে অস্থিরতা

এবারও অর্জিত হচ্ছে না রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা

তারেককে ফেরানো কঠিন হবে আসামি প্রত্যার্পণ চুক্তি না থাকায়

কোটা বাতিলে সাংবিধানিকভাবে সমস্যা নেই, সংস্কারই শ্রেয়

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতির সংস্কার চান বিশ্লেষকেরা

সহায়ক বাণিজ্য পরিবেশ পেলে ব্যবসায়ীরা চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত

মাদক নির্মূল অভিযান, সহনীয় পর্যায় না আসা পর্যন্ত চলবে

আগামী বুধবার থেকে বাসের টিকিট বিক্রি শুরু

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়ে রুল

‘বন্দুকযুদ্ধে’ এগারো জেলায় ১১ জন নিহত