স্থানীয়/জনপদ

শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ (১৮:১২)

টেকনাফে ১০২ ইয়াবা ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ

টেকনাফে ১০২ ইয়াবা ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ

কক্সবাজারের টেকনাফে ১০২ ইয়াবা কারবারি পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। এ সময় সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা, ৩০টি অস্ত্র ও ৭০ রাউন্ড গুলি জমা দেন তারা।

শনিবার সকালে টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ অত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বাংলাদেশকে ইয়াবামুক্ত করা হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা যদি মাদকের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থাকে তাদের বিরুদ্ধেও প্রচলিত আিইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ সময় আত্মগোপনে থাকা ইয়াবা কারবারিদের কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, কোনো মাদক ব্যবসায়ীকে ছাড় দেওয়া হবে না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আত্মসমর্পণকারী ইয়াবা কারবারিদের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র আইনে মামলা করে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। তবে সরকারের পক্ষ থেকে তাদের আইনি সহায়তা দেওয়া হবে। আত্মসমর্পণকারীদের মধ্যে যদি কেউ আর্থিক ভাবে অসচ্ছল থাকে তাদেরও সহায়তা দেওয়া হবে। তবে তাদের বেশির ভাগই বিত্তবান। ইয়াবা কারবার থেকে আয় করা সম্পদ জব্দ করে সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হবে।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ‘সেফহোম’ থেকে বাসে করে আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানস্থলে নিয়ে আসা হয় ইয়াব কারবারিদের। পরে টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে মঞ্চের পাশেই একটি কক্ষে রাখা হয় তাদের। তাদের পরনে স্বাভাবিক পোশাকই দেখা গেছে।

পরে সকাল পৌনে ১১টায় আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, উখিয়া-টেকনাফের সংসদ সদস্য শাহিন আক্তার, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন ও সংসদ সদস্য জাফর আলম, সাইমুন সরোয়ার কমল ও আশেক উল্লাহ রফিক, জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসাইন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন ও টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ আইনৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। শুরুতে বক্তব্যে রাখেন ওসি প্রদীপ।

পুলিশ জানায়, কক্সবাজার-টেকনাফ আরকান সড়ক যোগে তিনটি বাসে করে ‘সেফহোম’ থেকে টেকনাফে আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানস্থেলে আনা হয়।

তাদের মধ্যে রয়েছেন টেকনাফের সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির চার ভাই আবদুল আমিন, আবদুর শুক্কুর, মোহাম্মদ সফিক ও মোহাম্মদ ফয়সাল, ভাগিনা সাহেদুর রহমান নিপু এবং বেয়াই শাহেদ কামাল। আরও রয়েছেন টেকনাফ সদরের এনামুল হক মেম্বার, ছৈয়দ হোসেন মেম্বার, শাহ আলম, আবদুর রহমান, মোজাম্মেল হক, জোবাইর হোসেন, নূরল বশর নুরশাদ, কামরুল হাসান রাসেল, জিয়াউর রহমান, মোহাম্মদ নুরুল কবির, মারুফ বিন খলিল ওরফে বাবু, মোহাম্মদ ইউনুছ, ছৈয়দ আহমদ, রেজাউল করিম, নুরুল হুদা মেম্বার, দিদার মিয়া, জামাল হোসেন মেম্বার, মোহাম্মদ শামসুসহ অনেকে।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

বিএসএফের গুলিতে দিনাজপুর সীমান্তে বাংলাদেশি নিহত

গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে প্রাণ গেল একই পরিবারের ৪ জনের

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত ১

ঝিনাইদহে যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

রাঙামাটিতে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

খাগড়াছড়িতে বজ্রপাতে মা-ছেলে নিহত

টেকনাফে ইয়াবাসহ আটক যুবক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

নাটোরে মা ও প্রতিবন্ধি শিশুসন্তান খুন

সর্বশেষ খবর

জাপান সফরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

প্রস্তুতি ম্যাচে হতাশার হার ভারতের

বিএসএফের গুলিতে দিনাজপুর সীমান্তে বাংলাদেশি নিহত

ইউরোপীয় ইউনিয়নে ভোট রোববার