আন্তর্জাতিক

শুক্রবার, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ (১৮:৪৭)

রাখাইনে 'গণহত্যার আলামত' পাওয়া গেছে: ইয়াংহি লি

ইয়াংহি লি

রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর সংগঠিত সেনা অভিযানে 'গণহত্যার আলামত' পাওয়া যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন মিয়ানমারের মানবাধিকার বিষয়ক জাতিসংঘ দূত ইয়াংহি লি। দিন দিন সেই আলামত স্পষ্ট হচ্ছে বলেও সিউলে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্তব্য করেন তিনি। রাখাইনে নতুন পাঁচটি গণকবরের সন্ধান পাওয়ার খবরে উদ্বেগ জানিয়েছে জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে, কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবিরসহ বাংলাদেশের কোনো স্থানেই হামলা করবে না বলে জানিয়েছে রোহিঙ্গা বিদ্রোহী সংগঠন আরসা।

পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ এনে গত ডিসেম্বরে মিয়ানমারের মানবাধিকার বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত ইয়াংহি লি'র রাখাইন সফরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি।

পরে জানুয়ারির শেষ দিকে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি দেখতে বাংলাদেশে আসেন জাতিসংঘের এই দূত। কক্সবাজারে শরণার্থী শিবিরগুলো পরিদর্শন করেন তিনি। রাখাইনে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের বর্ণনাও শোনেন রোহিঙ্গাদের কাছে।

সরেজমিনে পরিস্থিতি দেখার পর বৃহস্পতিবার দক্ষিণ আফ্রিকার সিউলে এক সংবাদ সম্মেলনে জাতিসংঘ দূত বলেন, নির্ভনযোগ্য কোনো আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল বা আদালতে সাক্ষ্য না দেওয়া পর্যন্ত তিনি গণহত্যার ব্যাপারে সরাসরি কিছু বলতে চাচ্ছেন না। তবে গণহত্যার আলামত ধীরে ধীরে জোরালো হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এ কারণে তাড়াহুড়া করে রোহিঙ্গাদের ফেরত না পাঠানোর আহ্বানও জানিয়েছেন জাতিসংঘের এ দূত বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রশ্নে জাতিগত স্বীকৃতি আর নাগরিকত্ব নিশ্চিতই মূল বিবেচনায় রাখা উচিত।

বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা এপির অনুসন্ধানে নতুন পাঁচটি গণকবরের সন্ধান পাওয়ার খবরে উদ্বেগ জানিয়েছে জাতিসংঘ।

বিশ্বসংস্থাটির মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেন, এমন খবর যাচাইয়ে এখন রাখাইনে জাতংসঘের প্রবেশের অনুমতি প্রয়োজন।

উদ্বেগ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রও। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর বলেছে, মানবাধিকার হরণ এবং লঙ্ঘনে জাড়িতদের বিচারের মুখোমুখি করার বিষয়ে সবার সহযোগিতাই একমাত্র লক্ষ্য। বিশ্বের জানা উচিত সেখানে কী ঘটছে।

এদিকে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে ফেব্রুয়ারিতে রাখাইন সফরে যেতে নিষেধ করছে মিয়ানমার। বিশ্বসংস্থার প্রতিনিধিদের রাখাইনে পরিদর্শনের প্রস্তাব পুরোপুরি নাকচ না করলেও নেপিদো বলছে, এখন সফরের উপযুক্ত সময় নয়। কুয়েতের আহ্বানে এ সফরটির উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

ত্রিপুরায় চলছে বিধানসভা নির্বাচন

গাজায় বিস্ফোরণে ৪ ইসরায়েলি সেনা আহত

ইরান-মেক্সিকোতে বিমান-হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, নিহত ৭৯

মার্কিন নির্বাচনে ১৩ রুশ অভিযুক্ত: এফবিআই

মিয়ানমার জেনারেলের ওপর কানাডার অবরোধ

জয়নব হত্যাকাণ্ড : ইমরান আলীকে মৃত্যুদণ্ড দিল আদালত

ক্রুস সম্পর্কে এফবিআইকে আগেই সতর্ক করা হয়

দ. আফ্রিকার নতুন প্রেসিডেন্ট হলেন সিরিল রামাফোসা

সংগীতশিল্পী সাবা তানি না ফেরার দেশে

খালেদাকে ছাড়া কোনো নির্বাচন নয়: বিএনপি

খালেদার আরও বেশি সাজা হওয়া উচিত ছিল: আইনমন্ত্রী

বস্তা দেয়া হচ্ছে হিমাগারে: পাট সচিব