সদ্য পাওয়া
Desh TV Logo জাতীয়: ভারতের কাছে প্রতিবেশি দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে অগ্রাধিকার বেশি বাংলাদেশের: সুষমা স্বরাজ; ভারতের অর্থায়নে ১৫টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন Desh TV Logo রোহিঙ্গাদের সহায়তার বিষয়ে আজ জেনেভায় প্লেজিং কনফারেন্স, ৬ মাসের জন্য দাতাদের কাছে চাওয়া হবে ৪৪ কোটি ডলার Desh TV Logo রোহিঙ্গা পরিস্থিতি দেখতে কক্সবাজারে জর্ডানের রানী রানিয়া আল আব্দুল্লাহ Desh TV Logo রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে আলোচনা করতে ৩ দিনের সরকারি সফরে আজ মিয়ানমার যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী Desh TV Logo নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় দেয়ালচাপায় তিন শিশুর মৃত্যু Desh TV Logo চুয়াডাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় একজনের মৃত্যু Desh TV Logo জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের স্ত্রী শিলা ইসলাম লন্ডনে মারা গেছেন, দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারে ভুগছিলেন তিনি; প্রধানমন্ত্রীর শোক Desh TV Logo আন্তর্জাতিক: জাপানে আগাম নির্বাচনে বড় জয় এলডিপি জোটের, তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হতে চলছেন শিনজো আবে Desh TV Logo জাপানে টাইফুন ল্যানের তা-বে নিহত ২ Desh TV Logo খেলা: ক্রিকেট: তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ভারতকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড; স্কোর: ভারত ২৮০/৮, নিউজিল্যান্ড ২৮৪/৪ Desh TV Logo ফুটবল: ইপিএল: লিভারপুল ২-৪ টটেনহাম, এভারটন ২-৫ আর্সেনাল; লা লিগা: রিয়াল মাদ্রিদ ৩-০ এইবার Desh TV Logo দেশ টিভির সংবাদ দেখুন সকাল সাড়ে ৭টা, ১০টা, বেলা ১২টা, দুপুর ২টা, বিকাল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ৯টা, ১১টা এবং ১টায়

কফি আনান কমিশনের রিপোর্টের ওপর নিরাপত্তা পরিষদে শুনানি

বৃহস্পতিবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৭ (১৩:৪৩)
কফি-আনান-কমিশনের-রিপোর্টের-ওপর-নিরাপত্তা-পরিষদে-শুনানি

কফি আনান কমিশনের রিপোর্টের ওপর নিরাপত্তা পরিষদে শুনানি

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিমদের নিয়ে কফি আনান কমিশনের রিপোর্টের ওপর শুনানি করতে শুক্রবার অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে বসবে।

কূটনীতিকরা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খবর এএফপি’র।

গত আগস্টে চূড়ান্ত প্রতিবেদনে, রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব প্রদান এবং মিয়ানমার-বাংলাদেশের যৌথ যাচাইপ্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের নিরাপদে প্রত্যাবাসন, রাখাইনে অর্থনৈতিক উন্নয়ন, মানবিক সহায়তায় এবং গণমাধ্যমের প্রবেশাধিকার, বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত ইস্যুসহ মিয়ানমারকে ৮৮ দফা সুপারিশ পেশ করে কফি আনান কমিশন।

জাতিসংঘের রাজনীতি বিষয়ক শীর্ষ কর্মকর্তা জেফ্রি ফেটম্যান রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা করতে চার দিনের জন্য শুক্রবার মিয়ানমার যাচ্ছেন।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সামরিক বাহিনীর ব্যাপক দমনপীড়নের কারণে আগস্ট মাসের শেষ দিক থেকে পাঁচ লাখের বেশী মানুষ ওই রাজ্য থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসংঘ এটিকে ‘জাতিগত নিধন’ হিসেবে আখ্যায়িত করে এর কঠোর নিন্দা জানায়।

জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস সামরিক দমনপীড়ন বন্ধের এবং রাখাইন রাজ্যে পুড়িয়ে দেয়া বিভিন্ন গ্রামে ত্রাণকর্মীদের প্রবেশের সুযোগ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি রোহিঙ্গাদের নিরাপদে তাদের ঘরবাড়িতে ফিরে যাওয়ার অনুমতি দেয়ার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেয়ারও আহবান জানান।

জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা জানান, ফেটম্যান এসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের ব্যাপারে সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে মিয়ানমারের সাথে আলোচনা করবেন।

গত আগস্ট মাসের শেষের দিকে আনান রাখাইন রাজ্যের ব্যাপারে গঠিত কমিশনের চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন।

এই কমিশনের সভাপতি হিসেবে তিনি মিয়ানমারের কার্যত নেতা অং সান সুচির কাছে কিছু সুপারিশ বাস্তায়নের অনুরোধ জানিয়েছেন। আর সেটির ওপরই জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ শুনানি করতে যাচ্ছে।

এদিকে, অন্যদিকে, চলতি অক্টোবরের পর আর মিয়ানমারে থাকছেন না দেশটিতে জাতিসংঘের শীর্ষ কর্মকর্তা রেনাটা লক ডেসালিয়েন। সম্প্রতি বিবিসির এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে এই জাতিসংঘ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা সংকট ধামাচাপা দেওয়ার প্রচেষ্টার প্রমাণ মিলেছে।

গত মাসে বিবিসির ওই প্রতিবেদনে, রোহিঙ্গা সংকটে ডেসালিয়েনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তারই সাবেক সহকর্মীরা। সাবেক কয়েকজন জাতিসংঘ কর্মকর্তা এবং ত্রাণ কর্মী বলেন, তিনি জাতিসংঘের অফিসে রোহিঙ্গা নিয়ে কোনো কথা বলতে পর্যন্ত বারণ করেছিলেন। এমনকি মানবাধিকার কর্মীদের রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকায় যাওয়া থেকে বিরত রাখতেও চেয়েছেন ডেসালিয়েন।

গত জুনে জাতিসংঘ বলেছিল, ডেসালিয়েনকে বদলি করা হবে তবে এর সঙ্গে তার কাজের কোনো যোগসূত্র নেই। তবে ইয়াঙ্গুনে কূটনৈতিক ও ত্রাণ সংস্থা সূত্রের বরাত দিয়ে বিবিসি বলছে, ডেসালিয়েনকে বদলির ওই সিদ্ধান্তের সঙ্গে মিয়ানমারে মানবাধিকার ইস্যুকে অগ্রাধিকার দেয়ায় তার ব্যর্থতার সম্পর্ক রয়েছে।

অবশ্য মিয়ানমারে জাতিসংঘ দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, ডেসালিয়েনকে সরিয়ে নেয়াটা বিশ্বসংস্থায় বদলির নিয়মিত প্রক্রিয়ার অংশ।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

পুরনো সংবাদ

শুক্র
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
 
 
০১
০২
০৩
০৪
০৫
০৬
০৭
০৮
০৯
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০
৩১