নির্বাচন

ksrm

বৃহস্পতিবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৮ (১৮:৪২)

ইভিএমে ভোটের বিধান রেখে আরপিও সংশোধনের প্রস্তাব: সিইসি

কেএম নুরুল হুদা

নির্বাচন কমিশন ইভিএমে ভোট গ্রহণের বিধান রেখে আরপিও সংশোধনের প্রস্তাব করা হয়েছে—কয়েকদিনের মধ্যে প্রস্তাব আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে— বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা।

বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে তিনি এ কথা বলেন।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গেও আলোচনা হবে— উল্লেখ করে সিইসি বলেন, জাতীয় নির্বাচনেই যে ইভিএম ব্যবহার করা হবে, পরিস্থিতি কিন্তু সে রকম নয়। স্থানীয় সরকার নির্বাচন ভালো ফল পেয়েছি। প্রয়োজনে যাতে সংসদ নির্বাচন তা ব্যবহার করা যায়। সে প্রস্তুতি নিতেই আমরা আইন সংশোধনের প্রস্তাব করেছি।

তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে যে ইভিএম ব্যবহার করা হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। স্টেক হোল্ডাররা সম্মতি দিলে ইভিএম ব্যবহার করা হবে। এ বিষয়ে কমশিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সুতরাং ইভিমএম ব্যবহার হবে সে সিদ্ধান্ত নেইনি তবে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

ইভিএম ব্যবহারে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারের আপত্তি সম্পর্কেও সিইসি নুরুল হুদা বলেন, নোট অব ডিসেন্ট সম্পের্ক ওনার ভিন্নমত থাকতে পারে। এটা গণতান্ত্রিক পদ্ধতি।

এর আগে আরপিও সংশোধনী প্রস্তাব চূড়ান্ত করতে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে নির্বাচন কমিশনের বৈঠক শুরু হয়। বৈঠক শুরুর আধা ঘণ্টার মধ্যেই সেখান থেকে বেরিয়ে যান কমিশনার মাহবুব তালুকদার। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন কেনার বিষয়ে আপত্তি জানান তিনি ।

গত বছর অংশীজনদের সঙ্গে ইসির সংলাপে আলোচিত বিষয় ছিল ইভিএম। ৩৯টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল সংলাপে অংশ নিয়েছিল। ২৩টি দল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম নিয়ে নিজেদের মতামত জানিয়েছিল। এর মধ্যে বিএনপিসহ ১২টি দল ইভিএম ব্যবহারের বিপক্ষে মত দেয়। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগসহ সাতটি দল ইভিএমের পক্ষে। তিনটি দল পরীক্ষামূলক ও আংশিকভাবে এবং একটি দল শর্ত সাপেক্ষে ইভিএম ব্যবহারের পক্ষে মত দিয়েছিল।

ইসি এত দিন বলে এসেছে, সব দল না চাইলে জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে না। এখন তারা বলছে, সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের পরিকল্পনা তাদের আছে, তবে এখনো সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়নি।

কিন্তু এর মধ্যে দেড় লাখ ইভিএম কেনার জন্য ৩ হাজার ৮২৯ কোটি টাকার একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে ইসি। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ইসিকে ইভিএম সরবরাহ করবে বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরি ।

'নির্বাচনব্যবস্থায় অধিকতর স্বচ্ছতা আনয়নের লক্ষ্যে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন ক্রয়, সংরক্ষণ ও ব্যবহার' শীর্ষক পাঁচ বছর মেয়াদি একটি প্রকল্পের অধীনে দেড় লাখ ইভিএম সংগ্রহ করতে চায় ইসি। অবশ্য ১৯ আগস্ট এই প্রকল্প নিয়ে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির সভা হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি।

এই হযবরল অবস্থার মধ্যেই গত জুলাই থেকে ইভিএম আমদানির প্রক্রিয়া শুরু হয়। এ জন্য ঋণপত্র খুলতে বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ অনুমোদন নিয়েছে ট্রাস্ট ব্যাংক। চীন, হংকংসহ আরও কয়েকটি দেশ থেকে ইভিএম ও আনুষঙ্গিক যন্ত্রপাতি এনে বিএমটিএফ তা নির্বাচন কমিশনকে সরবরাহ করবে বলে নথিপত্রে উল্লেখ রয়েছে। ইতিমধ্যে ৭৯৩ কোটি ৭৪ লাখ টাকার ঋণপত্র খোলা হয়েছে। যন্ত্রপাতি আমদানিতে মোট ব্যয় হবে ২ হাজার ৬৯৬ কোটি টাকা।

 

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

ভুটানে সাধারণ নির্বাচনের প্রথম দফার ভোটগ্রহণ

সংসদ নির্বাচন, ৩০ অক্টোবরের পর তফসিল: ইসি সচিব

অর্থমন্ত্রী ভুল বলেছেন: সিইসি

জোর করে ইভিএম নয়: সাবেক সিইসি শামসুল হুদা

নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে কমিশন অঙ্গীকারাবদ্ধ: সিইসি

ইভিএম নিয়ে উৎকণ্ঠা স্বাভাবিক: সিইসি

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে জাতীয় নির্বাচন: ইসি সচিব

আর সংলাপ নয়: ইসি সচিব

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টের দল ঘোষণা, বাদ পড়ল গোলরক্ষক সোহেল

দেশে ফিরল তানিম

জাতীয় ঐক্য-যুক্তফ্রন্ট দাবি তা বিএনপি- জামাতের দাবির ফটোকপি

জাতীয় পার্টির লক্ষ্য ক্ষমতায় যাওয়া: এরশাদ