শিক্ষা-শিক্ষাঙ্গন

রবিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭ (১৮:১৬)

জাবিতে সিনেট নির্বাচন: আ’লীগ-বামপন্থিদের জয়

রাতভর গণণা শেষে রোববার ভোরে ফল ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মর্কতা মনজুরুল হক

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়- জাবি সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবীর সমর্থিত আওয়ামী লীগ ও বামপন্থিরা সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে জয় লাভ করেছেন।

প্রায় দেড় যুগ পর শনিবার এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বাম দলগুলোর সমর্থকরা দুই ভাগ হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।

২৫টি পদের মধ্যে ১৯টিতে জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ ও বামপন্থিরা আর ৬টিতে জয় পেয়েছে বিএনপি সমর্থকেরা।

এবার ৪৪জন স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করলেও তাদের কেউ জয় লাভ করতে পারেনি।

নির্বাচন রিটার্নিং কর্মকর্তা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মো. মনজুরুল হক বলেন, চার হাজার ৩৭৩ জন ভোটারের মধ্যে তিন হাজার ৬৩৫ জন তাদের ভোট দিয়েছেন অর্থাৎ ভোট পড়েছে ৮৩% বেশি।

সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবীরের নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ ও বাম সমর্থকদের প্যানেল ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল জোট’ পেয়েছে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটদের ১৮টি পদ।

তারা হলেন- খন্দকার মহিদ উদ্দিন (২১৪৪ ভোট), কায়কোবাদ হোসেন (১৮৭৩ ভোট), শরীফ এনামুল কবীর (১৬৮৫ ভোট), আলমগীর কবীর (১৪৫৭ ভোট), মোহাম্মদ সোহেল পারভেজ (১৪৩৪ ভোট), আশীষ কুমার মজুমদার (১৪৩২ ভোট), শামীমা সুলতানা (১৪১১ ভোট), কৃষ্ণা গায়েন (১৪০২ ভোট), পৃথিলা নাজনীন নীলিমা (১৩৯৬ ভোট), মহাব্বত হোসেন খান (১২৩৮ ভোট), শেখ মনোয়ার হোসেন (১১৯৪ ভোট), মোতাহার হোসেন (১১৩১ ভোট), আবুল কালাম আজাদ (১১১৫ ভোট), মোহাম্মদ মেহেদী জামিল (১০৮২ ভোট), ইবায়দুল্লাহ তালুকদার (১০৭৭ ভোট), ইন্দু প্রভা দাস (৯৯৪ ভোট), মো. মাসুদুর রহমান (৯৮০ ভোট) এবং আনোয়ার হোসেন মৃধা (৯৭৫ ভোট)।

আর আওয়ামী লীগ ও বাম সমর্থকদের অপর প্যানেল ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও প্রগতিশীল গ্রাজুয়েটস মঞ্চ’ থেকে একমাত্র আব্দুল মান্নান চৌধুরী (১০২৭ ভোট) জয় পান।

বিএনপি সমর্থকদের ‘স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, বহুদলীয় গণতন্ত্র ও বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী’ প্যানেল ৬টি পদে জয়ী হয়েছে।

তারা হলেন- মোহাম্মদ কামরুল আহসান (১৩৪২ ভোট), শিহাব উদ্দিন খান (১৩০৭ ভোট), শামীমা সুলতানা (১২০৮ ভোট), মো. শামছুল আলম (১১৮৪ ভোট), সাবিনা ইয়াসমিন (১০৩০ ভোট) এবং মুহম্মদ নজরুল ইসলাম (১০১০ ভোট)।

প্রার্থীদের মধ্যে খন্দকার মহিদ উদ্দিন সর্বোচ্চ ২১৪৪ ভোট পেয়ে প্রথম হয়েছেন আর আনোয়ার হোসেন মৃধা ৯৭৫ ভোট পেয়ে হয়েছেন ২৫তম।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সমাজবিজ্ঞান অনুষদ ভবন এবং কলা ও মানবিকী অনুষদ ভবনে দুটি কেন্দ্রে শনিবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত এই ভোটগ্রহণ চলে।

রাতভর গণণা শেষে রোববার ভোর পৌনে ৫টায় ফল ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মর্কতা মনজুরুল হক।

শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন হওয়ার পর সফলভাবে ফলাফল প্রকাশ করতে পারায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, শিক্ষক-ছাত্র-কর্মকর্তা-কর্মচারী সবাইকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

তিনি বলেন, মৌখিক ফলাফল নিয়ে কারও কোনো আপত্তি বা অভিযোগ না পেলে তিন কর্মদিবস পরে এই ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বশেষ ১৯৯৮ সালে সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচন হয়। দীর্ঘদিন পর ভোট হওয়ায় উৎসব মুখর হয়ে উঠে ক্যাম্পাস।

সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধির ২৫টি পদের জন্য এবার তিনটি প্যানেল ও স্বতন্ত্রদের মিলিয়ে প্রার্থী ছিলেন মোট ১১৯ জন।

বিজয়ী প্রার্থিরা আগামী তিন বছর সিনেটে প্রতিনিধিত্ব করবেন।

 

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

এমপিওভুক্তির কমিটির সভা রোববার, দাবি পূরণ না পর্যন্ত আন্দোলন

জাতীয় অধ্যাপক হলেন তিন শিক্ষাবিদ

এমপিওভূক্তির দাবিতে আবারো রাজপথে শিক্ষক-কর্মচারিরা

বাজেটে উল্লেখ না থাকলেও এমপিওভুক্তিতে বাধা নয়: শিক্ষামন্ত্রী

একাদশে ভর্তির প্রথম তালিকা প্রকাশ

৩৯তম বিসিএস পরীক্ষা ৩ আগস্ট- ৩৮তম লিখিত শুরু ৮ আগস্ট

শেষ হলো ভাষা দক্ষতা যাচাই, বিজয়ীরা যাচ্ছেন চীনে

অনলাইনে আবেদনে বিপাকে শিক্ষার্থীরা

কোস্টারিকার ০-২ ব্রাজিল

ইন্দোনেশিয়ায় ধর্মীয় নেতার মৃত্যুদণ্ড

নওগাঁয় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

ময়মনসিংহে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২