অর্থনীতি

রবিবার, ১৯ মার্চ, ২০১৭ (১৮:০৯)

'এইচ আর ঢাকা' নামে কার্গো বিমানের যাত্রা শুরু

এইচ-আর-ঢাকা-নামে-কার্গো-বিমানের-যাত্রা-শুরু

ছবি নাই

প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকার পণ্য পরিবহনের বাজার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। কিন্তু এতে বাংলাদেশের কোনো অংশীদারিত্ব নেই। প্রায় পুরোটাই দখল করে আছে বিদেশি কার্গো পরিবহন।

তবে আশার কথা, এই বাজারে প্রবেশ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশি মালিকানায় 'এইচ আর ঢাকা' নামে একটি কার্গো বিমান। উদ্যোক্তারা আশা করছেন এর মাধ্যমেই ৪ হাজার কোটি টাকার বাজারের অনেকটাই দখলে নিতে পারবেন তারা।

আন্তর্জাতিক রুটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে প্রতি বছর পণ্য রপ্তানি হয় প্রায় ১ লাখ ৮৫ হাজার টন। এ পরিমাণ পণ্য পরিবহনে রপ্তানিকারকদের ভাড়া গুণতে হয় প্রায় ২ হাজার ২০০ কোটি টাকা। আর ১ লাখ ৬৫ হাজার টন পণ্য আমদানিতে ভাড়া গুণতে হয় প্রায় ১ হাজার ৭২০ কোটি টাকা।

এসব পণ্য পরিবহনে বাংলাদেশের কোনো কার্গো বিমান নেই। যাত্রী পরিবহনের পাশাপাশি মাত্র ১৫ থেকে ২০ শতাংশ পণ্য আনা নেয়া করে বিমান বাংলাদেশ। বাকিটায় একচ্ছত্র আধিপত্য বিদেশি কার্গো বিমানের।

তবে আশা দেখাচ্ছে ‘এইচ আর ঢাকা’। বাংলাদেশি মালিকানায় প্রথম এ কার্গো বিমানটি পরিচালনা করতে যাচ্ছে ইজি ফ্লাই এক্সপ্রেস। এর মাধ্যমে আকাশ পথে পণ্য পরিবহনে, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশ তার অবস্থান পাকাপোক্ত করতে পারবে বলেই আশা তাদের।

কার্গো বিমান পরিচালনা এবং ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ একেবারেই নতুন। তাই শুরুর দিকের ধকল সামলে উঠাকেই চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন তারা।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

রাষ্ট্রায়ত্ত ৮ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল

সরকারে বড় সাফল্য আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, মতামত বিশ্লেষকদের

তিন ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষায় বাধা নেই

জনতা-সোনালী-রূপালী ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বন্ধের নির্দেশ

আরও খবর

দেশে রপ্তানি আয় বেড়েছে ৩ গুণ: শেখ হাসিনা

আইভী-শামীমের দ্বন্দ্ব অনাকাঙ্খিত: খন্দকার মোশাররফ

শামীম ওসমান-আইভিকে ডাকা হবে: ওবায়দুল

চট্টগ্রাম থেকে ফিরলেন প্রণব মুখার্জি

আন্তর্জাতিক নীতিমালা মেনে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের আহ্বান ইউএনএইচসিআরের

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: চুক্তির বিষয়ে চারটি গভীর সংশয় প্রকাশ

দেশে রপ্তানি আয় বেড়েছে ৩ গুণ: শেখ হাসিনা

এক শ্রেণী অবৈধভাবে ক্ষমতায় যেতে চায়: শেখ হাসিনা

নবম ওয়েজবোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া এগিয়েছে: তারানা

আইভী-শামীমের দ্বন্দ্ব অনাকাঙ্খিত: খন্দকার মোশাররফ