সংস্কৃতি-বিনোদন

বৃহস্পতিবার, ০৫ এপ্রিল, ২০১৮ (১৮:৩৮)

কারাগারে সালমান

সালমান খান

যোধপুর সেন্ট্রাল জেলে থাকতে হবে সালমান খানকে— তাকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কারাগারে নেয়ার পথে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

কারাগারের অভ্যন্তরে যাতে এ বলিউড তারকার নিরাপত্তা বিঘ্নিত না হয় সে ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে কারাগার কর্তৃপক্ষ।

এরইমধ্যে আজই দায়রা আদালতে সালমান খানের জামিনের আবেদন কাগজপত্র ঠিক করেছেন তার আইনজীবী।

তিনি বলেন, জামিনের সব কাগজ তৈরি করা হয়েছে পাঁচ বছরের বেশি জেল হওয়ায় যোধপুর আদালত তাকে জামিন দিতে পারবেন। তবে জামিন না পাওয়া পর্যন্ত সালমান খানকে কারাগারে থাকতে হবে।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, রায় ঘোষণার পর সালমান খানকে হাতকড়া পরিয়ে যোধপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ৫০ মিনিটে সালমানকে বহনকারী পুলিশের একটি গাড়ি আদালত থেকে কারাগারে প্রবেশ করে। এ সময় চারপাশে ব্যাপক নিরাপত্তা নেয়া হয়। সেখানে উৎসুক জনতা ভিড় করে পুলিশ লাঠিচার্জ করে জনতাকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

মুম্বাই থেকে গতকাল বুধবার যোধপুরে এসেছেন সালমান খান।

রায় ঘোষণার সময় আদালতে হাজির ছিলেন সালমান ও তার দুই বোন আলভিরা খান অগ্নিহোত্রী ও অর্পিতা খান শর্মা।

রায় ঘোষণার সময় খুবই বিমর্ষ ছিলেন তারা। কিন্তু রায় ঘোষণার পর ভেঙে পড়েন আলভিরা। আদালতের মধ্যেই কান্নায় ভেঙে পড়েন। অর্পিতা এখনো কোনো মন্তব্য করেননি।

সালমান খানকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় ভারতের রাজস্থান রাজ্যের যোধপুরের একটি আদালত। পাশাপাশি তাকে ১০ হাজার রুপি জরিমানা করা হয়েছে। তাকে বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইনের ৫১ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়। ২০ বছর আগের কৃষ্ণসার হরিণ শিকার মামলার রায় হলো বৃহস্পতিবার সকালে। এই মামলায় অন্য তিন অভিযুক্ত সাইফ আলী খান, টাবু ও সোনালী বেন্দ্রেকে আদালত বেকসুর খালাস দিয়েছেন।

বলিউডে সালমান খানকে বলা হয় ‘হিট মেশিন’। সকালে রাজস্থানের যোধপুর আদালতে সেই সালমান খানকে দোষী সাব্যস্ত করে কারাদণ্ড দেয়ায় থমকে গেছে বলিউড। অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছেন অনেক চিত্র প্রযোজক। কারণ এরই মধ্যে এক হাজার কোটি রুপির বেশি লগ্নি করা হয়েছে এ নায়ককে ঘিরে।

সালমান খানের আইনজীবী এইচ এম সারস্বত দাবি করেন, সরকারি কৌঁসুলি অভিযোগের সপক্ষে প্রমাণ সংগ্রহ করতে পারেননি। মামলা সাজাতে ভুয়া সাক্ষী দাঁড় করিয়েছেন। এমনকি বন্দুকের গুলিতেই যে কৃষ্ণসার দুটির মৃত্যু হয়েছিল, তা-ও সরকারি কৌঁসুলি প্রমাণ করতে পারেননি। গত ২৮ মার্চ নিম্ন আদালতে কৃষ্ণসার মামলার চূড়ান্ত পর্যায়ের শুনানি শেষ হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিদের দাবি, ১৯৯৮ সালের ১ ও ২ অক্টোবর যোধপুরে ‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’ ছবির শুটিংয়ের মাঝে আলাদা আলাদা জায়গায় দুটি কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা করেন সালমান খান। ওই সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন সাইফ আলী খান, নীলম, টাবু ও সোনালী বেন্দ্রে।

রাজস্থানের যোধপুরের কঙ্কানি এলাকায় গ্রামের ক্ষুদ্র জাতিসত্তার অধিবাসীদের অভিযোগ, গুলির শব্দ শুনে তাঁরা সালমানের জিপসি গাড়িটি ধাওয়া করেন। কিন্তু তাঁদের ধরা যায়নি। ওই সময় চালকের আসনে ছিলেন সালমান খান। গ্রামবাসীর দাবি, প্রবল গতিতে গাড়ি ছুটিয়ে সালমান খান আর তাঁর সঙ্গীরা পালিয়ে যান।

বেআইনিভাবে জঙ্গলে ঢোকার অভিযোগে সালমান খান আর অন্য তিন তারকার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৯ নম্বর ধারায় মামলা এখনো চলছে।

 

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

'হাসিনা: অ্যা ডটার'স টেল' এর প্রদর্শন শুরু

হুমায়ূন আহমেদের ৭০তম জন্মদিন আজ

নাগরিক টিভিতে দেখা যাবে সম্রাট আকবর পুত্র জাহাঙ্গীরের প্রেমকাহিনি

ইসলাম গ্রহণ করলেন বিশ্বখ্যাত গায়িকা সিনিড

সর্বসাধারণের ভালোবাসায় সিক্ত হেলন আইয়ুব বাচ্চু

পালিত হচ্ছে শারদীয় দুর্গাপূজার মহানবমী

না ফেরার দেশে আইয়ুব বাচ্চু

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য-উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হচ্ছে মহাঅষ্টমী

নির্বাচনে গণমাধ্যমের সহায়তা চাইলো ঐক্যফ্রন্ট

মিয়ানমারের ইয়াংগুনের উপকূলে শতাধিক রোহিঙ্গা আটক

খাশোগি হত্যা: সৌদির ওপর নিষেধাজ্ঞা আমেরিকার

এটিপি ফাইনালসের সেমিফাইনালে ফেদেরার