সোমবার, ২৭ নভেম্বর, ২০১৭ (১৮:৫৪)
হাইকোর্টের রায়ের পর্যবক্ষেণ

পিলখানার নৃশংসতা সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গৌরবকে ম্লান করেছে

পিলখানার-নৃশংসতা-সীমান্তরক্ষী-বাহিনীর-গৌরবকে-ম্লান-করেছে

হাইকোর্ট

পিলখানার নৃশংস হত্যাযজ্ঞ মুক্তিযুদ্ধ এবং এর পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গৌরব উজ্জল ভূমিকাকে ম্লান করে দিয়েছে বলে হাইকোর্টের রায়ের পর্যবক্ষেণে উঠে এসেছে। বিডিআর থেকে সেনা কর্তৃত্বখর্ব করা, একটি সুশৃঙ্খল বাহিনীকে ধ্বংস করা, রাষ্ট্রের স্থিতিশীলতা নষ্ট করাসহ বেশ কিছু ষড়যন্ত্রের ফলাফল এ বিদ্রোহ।

বিদ্রোহের আগে গোয়েন্দা বাহিনী কেন কোনো তথ্য দিতে ব্যর্থ হয়েছিল সেটি তদন্ত করার জন্য একটি কমিটি গঠন, ডালভাত কর্মসূচির মতো উদ্যোগে আইন শৃঙ্খলা রক্ষকারী বাহিনীর অংশ না করানোসহ বেশ কিছু সুপারিশ পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি রায়ে তুলে ধরেন উচ্চ আদালত।

রাজধানীর পিলখানায় সীমান্তরক্ষী বাহিনী, তৎকালীন বিডিআর সদরদপ্তরে হত্যাযজ্ঞ মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের ৩৭০ দিনের শুনানি শেষে সোমবার রায় ঘোষণা করে উচ্চ আদালত। দেশের ইতিহাসের সর্বাধিক মৃত্যুদণ্ড পাওয়া এই মামলার দশ হাজার পৃষ্ঠার এ রায়ে হাইকোর্টের তিন বিচারপতি সাজা ও সুপারিশের বিষয়ে একমত হলেও আলাদা পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন।

পিলখানায় বিডিআর জওয়ানদের হাতে ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তার হত্যাযজ্ঞ একটি নজীরবিহীন ঘটনা। নৃশংস হত্যাযজ্ঞ ও ঔদ্ধত্বপূর্ণ আচরণ এই আধা সামরিক বাহিনীটির একটি কলঙ্কজনক অধ্যায়ের রচনা করেছে।

এই কলঙ্কের চিহ্ন তাদের চিরকাল বহন করতে হবে। তাদের এই বিদ্রোহ দাবি আদায়ের জন্য নয় বরং একটি সুশৃঙ্খল বাহিনীর চেইন অব কমাণ্ডকে ধ্বংস করে একে অকার্যকর করা, এই বাহিনী থেকে সেনা কর্তৃত্ব খর্ব করা, দেশের গণতন্ত্রকে ধ্বংস করাসহ দেশি-বিদেশি চক্রান্তের অংশ ছিল। রায়ের পর্যবেক্ষণে উঠে আসে এসব কথা।

বিদ্রোহ ঠেকাতে সেই সময় শেখ হাসিনা সরকারের নেওয়া পদক্ষেপের প্রশংসাও করা হয়েছে পর্যবেক্ষণে।

এ ধরণের ঘটনা যাতে আর না ঘটে সেজন্য বেশ কিছু সুপারিশ তুলে ধরে আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়, যেকোনো বাহিনীতে অধস্তন সঙ্গে ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের পেশাদারিত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজার রাখা উচিত। কোনো সমস্যা থাকলে মতবিনিময় করা উচিত। যদি কোনো প্রচ্ছন্ন ক্ষোভ থাকে তা প্রশমনে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

পিলখানা বিদ্রোহের আগে বিডিআর জওয়ানদের দাবি দাওয়া ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে তুলে ধরলেও তারা কোনো সিদ্ধান্ত দেয়নি। এ ধরণের আমলাতান্ত্রিক জটিলতা দূর করা প্রয়োজন।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

আদালতে খালেদা জিয়া

জামিনে মুক্ত আপনের মালিক

রূপনগর খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে হাইকোর্টের নির্দেশ

ছয় মাসের জন্য আটকে গেল যশোর রোডের শতবর্ষী গাছকাটা

আরও খবর

১২৫ রানে গুটিয়ে গেল জিম্বাবুয়ে

রংপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

রাশিয়া থেকে যুদ্ধবিমান কিনেছে মিয়ানমার

কলম্বিয়ায় ভূমিধসের ধাক্কায় যাত্রীবাহী বাস গিরিসঙ্কটে, নিহত ১৩

যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্তে বাড়ছে উত্তেজনা

১২৫ রানে গুটিয়ে গেল জিম্বাবুয়ে

মেয়র হিসেবে না'গঞ্জবাসীর লিডার আমি: আইভী

নির্বাচনে এককভাবে অংশগ্রহণের ঘোষণা থেকে সরে আসল এরশাদ

ঘুষ লেনদেনের অভিযোগ: শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্মকর্তা-লেকহেড স্কুলের মালিক গ্রেপ্তার